৬৪ দেশের ১৪১ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীকে পেছনে ফেলে প্রথম হলেন বাংলাদেশের তাহমিনা

চট্টগ্রামের মেয়ে উম্মে তাহমিনা হক। পুরোনো শহর, ইতিহাস কিংবা লোকগল্পের প্রতি ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিকের (ইউএপি) স্থাপত্য বিভাগের এই শিক্ষার্থীর আলাদা টান আছে। শেষ বর্ষে থিসিসের বিষয় হিসেবে তাই

নিজের প্রিয় শহর আর তার ইতিহাস বেছে নিয়েছিলেন তিনি। তখনো অবশ্য জানতেন না, তাঁর এই প্রকল্প জিতে নেবে তামায়ুজ অ্যাওয়ার্ড ২০২০।

স্নাতকের শিক্ষার্থীদের স্থাপত্য, নগর পরিকল্পনা ও ল্যান্ডস্কেপ নকশার কাজ জমা পড়েছিল এই প্রতিযোগিতায়। এ বছর এই পুরস্কারের জন্য ৬৪টি দেশের ১৪১টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০৮৯টি প্রকল্প জমা পড়ে। তাহমিনা পেয়েছেন প্রথম পুরস্কার।

এই জয়ের মধ্য দিয়ে প্রতিযোগিতায় এ বছরের সেরা স্থাপত্য অনুষদের সম্মানও অর্জন করেছে ইউএপির স্থাপত্য বিভাগ।

এ ছাড়া উম্মে তাহমিনার স্নাতক প্রকল্পের তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে ইউএপির স্থাপত্য বিভাগের শিক্ষক মেহরাব ইফতেখার এ বছরের সেরা থিসিস সুপারভাইজার নির্বাচিত হয়েছেন।

বন্দরনগরী চট্টগ্রামের ইতিহাস ও ঐতিহ্য বহু পুরোনো। এই বন্দরেই নোঙর ফেলেছিলেন আরব ও পর্তুগিজ বণিকেরা। দূর দেশের বণিক আর স্থানীয় সওদাগরদের এক মিশ্র সংস্কৃতি গড়ে উঠেছিল এখানে। এসব নিয়ে ভাবতে শুরু করেছিলেন

Updated: 12/01/2021 — 8:33 PM